কম্পিউটার শেখার উপকারিতা বা সুবিধা সমূহ

এই আর্টিকেলে আমরা কথা বলবো শিক্ষার্থীদের জন্য কম্পিউটার কোর্স করার সুবিধা কি কি বা কম্পিউটার শেখার উপকারিতা সম্পর্কে। বর্তমান জ্ঞান-বিজ্ঞানের সময়, এবং প্রযুক্তি প্রতিটি ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হচ্ছে। আর এই প্রযুক্তির একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল ‘কম্পিউটার’। আমরা যে ক্ষেত্রেই কথা বলি না কেন, কম্পিউটার অগণিত কাজের জন্য ব্যবহৃত হয়। এমতাবস্থায় যেসব শিক্ষার্থী কম্পিউটার সম্পর্কে ভালো জ্ঞান রাখে, তারা সহজেই চাকরি পায়। কম্পিউটার কোর্স বর্তমান সময়ে একটি অপরিহার্য যোগ্যতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কম্পিউটার কোর্স করে শিক্ষার্থীদের অনেক সুবিধা হয়। আর এই আর্টিকেল আমরা শুধু কম্পিউটার শেখার উপকারিতা সম্পর্কে কথা বলব। এখানে আমরা মূলত জানবো যে কম্পিউটার কোর্স করার সুবিধা কি কি? কম্পিউটার কোর্স করলে শিক্ষার্থীরা কী সুবিধা পায়? এর সাথে আমরা কম্পিউটার কোর্স কি এবং এর গুরুত্ব নিয়েও কথা বলব।

কম্পিউটার কোর্স করার সুবিধা

প্রথমেই একটু কম্পিউটার কোর্সের কথা বলি। সহজ কথায়, কম্পিউটার কোর্স হল কম্পিউটার শেখার একটি মাধ্যম। শিক্ষার্থীরা সাধারণত SSC, HSC বা graduation এর পর কম্পিউটার কোর্স করে থাকে। বিভিন্ন কম্পিউটার কোর্সে, কম্পিউটার সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় শিক্ষার্থীদের শেখানো হয় যাতে কম্পিউটার কোর্স করা শিক্ষার্থী তার কোর্স অনুযায়ী কম্পিউটারের একটি নির্দিষ্ট কাজে দক্ষতা অর্জন করে। অর্থাৎ কম্পিউটারে মূলত অনেক কিছু শেখার আছে, আপনার ক্যারিয়ার বা আগ্রহ অনুযায়ী আপনি যা শিখতে চান সেই কোর্সটি করতে পারেন। কম্পিউটার কোর্স সাধারণত ৬ মাস, ১ বছর, ২ বছর, ৩ বছর ইত্যাদি হতে পারে। এটা নির্ভর করে আপনি কম্পিউটারে কোন কোর্স করছেন তার উপর। কম্পিউটারকে মূল বিষয় হিসেবে নিলে, বি.টেক ইত্যাদি করতেও সময় লাগে ৪ বছর। আপনি যে কম্পিউটার কোর্স করেছেন তার ভিত্তিতেই আপনি চাকরি পাবেন। তাই বিভিন্ন কম্পিউটার কোর্সে কম্পিউটারের বিভিন্ন ফাংশন শেখানো ও শেখানো হয়। কম্পিউটার কোর্স বেসিক থেকে অ্যাডভান্স লেভেল পর্যন্ত। এর ভিত্তিতে এর মেয়াদ ও পরে ফি ইত্যাদিও নির্ধারণ করা হয়। কিছু সাধারণ কম্পিউটার কোর্সে আপনি অবশ্যই DCA, ADCA, PGDCA, DTP, TALLY ইত্যাদির নাম শুনেছেন, তারপরে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে BCA, MCA এবং B.techও শুনেছেন। এ ছাড়াও আরও অনেক কম্পিউটার কোর্স রয়েছে।

কম্পিউটার শেখার উপকারিতা

আপনি যদি যেকোনো ক্ষেত্রে চাকরির জন্য যান, আপনি যদি কোনো কম্পিউটার কোর্স করে থাকেন এবং আপনার ভালো কম্পিউটার জ্ঞান থাকে, তাহলে আপনি সহজেই ভালো চাকরি পেতে পারেন। অনেক চাকরির জন্য, বিশেষ করে কম্পিউটার কোর্স বাধ্যতামূলক। তাহলে কম্পিউটার কোর্স করে কি কি সুবিধা পাওয়া যায়, তার মধ্যে কিছু প্রধান বিষয় নিম্নরূপ-
    • আপনার জ্ঞান বৃদ্ধি পাবে।
    • কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে।
    • এটি ব্যবসায়ও সাহায্য করে।
    • ভালো বেতনের চাকরি ।
    • সরকারি চাকরি পেতে সাহায্য করে।
    • e.t.c

আপনার জ্ঞান বাড়ে-

কম্পিউটার কোর্স করার প্রথম সুবিধা হল আপনার জ্ঞান বৃদ্ধি পায়। কম্পিউটারে অনেক কিছু শেখার আছে, আর আজকের প্রযুক্তির যুগে কম্পিউটার সম্পর্কে সবারই সচেতন হওয়া উচিত। এর পাশাপাশি কম্পিউটার থেকে যেকোনো বিষয়ে তথ্য পেতে পারেন। আপনি যে কম্পিউটার কোর্সই করেন না কেন, আপনাকে একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে ভালোভাবে শেখানো হয়। এতে আপনার জ্ঞান ও জ্ঞান বৃদ্ধি পায়। আপনার কম্পিউটার-সম্পর্কিত জ্ঞান বৃদ্ধি পায়, যা আপনাকে ভবিষ্যতে ভালো চাকরি, বেতন এবং পদোন্নতি পেতে সাহায্য করে।

কর্মসংস্থানের সুযোগ

যোগ্য প্রার্থীরা প্রথমে সরকারি এবং বেসরকারি উভয় ক্ষেত্রেই চাকরি পান এবং বর্তমান সময়ে কম্পিউটার জ্ঞান থাকা একটি অপরিহার্য যোগ্যতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি যে কম্পিউটার কোর্সই করুন না কেন, আপনি সহজেই সেই সম্পর্কিত চাকরি পেতে পারেন। বিভিন্ন কোম্পানি শিক্ষিত এবং কম্পিউটারাইজড প্রার্থীদের ভালো চাকরি দেয়। কম্পিউটারের কোনো ডিগ্রি না থাকায় অনেক প্রার্থীই চাকরি পেতে পারছেন না। তাই কম্পিউটার কোর্স কর্মসংস্থানের সুযোগ পেতে অনেক সাহায্য করে।

এটি ব্যবসায়ও সাহায্য করে-

চাকরির পাশাপাশি আপনি যদি ব্যবসা করতে চান, তাহলে ব্যবসায় এমন অনেক কাজ আছে যার জন্য আপনি কম্পিউটার ব্যবহার করা প্রয়োজনীয় । অতএব, একটি কম্পিউটার কোর্স করা আপনাকে ব্যবসায় সহায়তা করে। কম্পিউটার অনেক কাজে ব্যবহৃত হয় যেমন ব্যবসায়িক লেনদেন করা, অ্যাকাউন্টিং করা, আমদানি ও রপ্তানির রেকর্ড রাখা, বিল পরিচালনার পাশাপাশি ইত্যাদি। এমন পরিস্থিতিতে, আপনি যদি কোনও কম্পিউটার কোর্স করে থাকেন, যেখানে আপনাকে এই মৌলিক বিষয়গুলি সম্পর্কে শেখানো হয়, তবে ব্যবসায়ের ক্ষেত্রেও আপনি কম্পিউটার কোর্সের সুবিধা পাবেন।

ভালো বেতনের চাকরি

কম্পিউটারের ব্যবহার প্রতিটি ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে, যদি দুই জন স্টুডেন্ট যার মধ্যে একজন কম্পিউটার জ্ঞান আছে, আর অন্য জনের নেই। যার কম্পিউটার জ্ঞান আছে তাকে অবশ্যই চাকরিতে প্রাধান্য দেওয়া হবে। একটি কম্পিউটার কোর্স করা আপনাকে শুধুমাত্র ভাল কর্মসংস্থানের সুযোগই দেয় না, আপনাকে কর্মসংস্থানে একটি ভাল বেতনের চাকরিও পেতে সাহায্য করে৷

সরকারি চাকরি পেতে সাহায্য করে

চাকরির ক্ষেত্রে শুধু সরকারি চাকরির কথা বললে ছাত্রছাত্রীদের এর প্রতি আলাদা ঝোঁক রয়েছে, যার অনেক কারণ রয়েছে। কিছু নিদিষ্ট ক্ষেত্রের চাকরি এমন যে কম্পিউটার কোর্সে ডিগ্রি থাকা বাধ্যতামূলক, সরকারি চাকরির জন্য কম্পিউটার দক্ষতা প্রয়োজন। যে কারণে সরকারি চাকরির প্রস্তুতি নেওয়া শিক্ষার্থীরাও একই সঙ্গে কম্পিউটার কোর্স করছে। কম্পিউটার কোর্স সরকারি চাকরি পেতেও সাহায্য করে।

উপসংহার

উপরে দেওয়া এই আর্টিকেলে, আমরা কম্পিউটার শেখার উপকারীতা সম্পর্কে কথা বলেছি। আজকের সময় অনুযায়ী ভালো চাকরি পাওয়ার জন্য কম্পিউটার কোর্স একটি অপরিহার্য যোগ্যতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে কম্পিউটার কোর্স করা উচিত কারণ এর অনেক সুবিধা রয়েছে।

এখানে আমরা কম্পিউটার কোর্স করার প্রধান কিছু সুবিধার কথা বলেছি। যদি এটি ভালো লেগে থাকে তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন।

1 thought on “কম্পিউটার শেখার উপকারিতা বা সুবিধা সমূহ”

Leave a Comment