কিভাবে অনলাইন টিউশনের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা যায়?

Spread the love

বর্তমান সময়ে ঘরে বসে আয়ের অন্যতম একটি ভাল উপায় হল অনলাইন টিউশন। অনেকেই বাংলাদেশে বসে আমারিকা, যুক্তরাজ্য ও কানাডার বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিষয়ের উপর টিউশনে করে টাকা আয় করছেন।  এখানে টিউশনের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপের কথা বল হল।

প্রথম ধাপ হল একটি বিনামূল্যের অনলাইন টিউটরিং প্রোফাইল সেট আপ করা। আপনার প্রোফাইল সেট আপ করার পরে, আপনি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টিউটরিং অনুরোধ পেতে শুরু করতে পারেন।

তারপরে আপনি নতুন শিক্ষার্থীদের সাথে নিজেকে পরিচয় করিয়ে দিতে পারেন এবং অনলাইন টিউটরিং চাকরি পেতে শুরু করতে পারেন। স্বাধীনভাবে কাজ করা অনলাইন টিউটরদের গড় বেতন ঘণ্টায় প্রায় $৩০।

অনলাইন টিউশনের মাধ্যমে অর্থ উপার্জনের আরেকটি বিকল্প হল আপনার নিজের অনলাইন টিউশন ব্যবসা শুরু করা। এক্ষেত্রে আপনার কিছু নির্দিষ্ট সরঞ্জামের প্রয়োজন হবে, যেমন একটি কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট সংযোগ। আপনি টিউশন প্যাকেজ তৈরি করতে পারেন এবং হয় একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন বা একটি ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম দিয়ে শুরু করতে পারেন।

আপনি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অর্থ নিতে পারেন এবং আপনার টিউশন ক্লাসের প্রচার শুরু করতে পারেন। আপনার নিজের অনলাইন টিউশন ক্লাস শুরু করার খরচ পরিবর্তিত হয়, তবে ছাত্রদের পেতে একটি উপায় হল আপনার সেবাগুলি বাজারজাত করা।

তৃতীয় উপায়টি হল একটি অনলাইন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য প্রতি ঘণ্টায় কাজ করা। অনেক অনলাইন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে, সাধারণত ভাষা শেখানোর জন্য যারা নিয়োগ দিচ্ছে। এই কাজটি আপনি কয়েক সপ্তাহের মধ্যে শুরু করতে পারেন এবং অনলাইনে শিক্ষাদান থেকে একটি স্থির, নির্ভরযোগ্য আয় উপার্জন শুরু করতে পারেন।

অনলাইন টিউটরিং করে কত টাকা আয় করা যায় ? 

বর্তমান সময়ে অনলাইন টিউটরিং অর্থ উপার্জনের একটি অন্যতম একটি উপায়। জনপ্রিয় কয়েকটি অনলাইন টিউটরিং সাইট আছে, যার মাধ্যমে অনেকেই আয় করছে এবং এর ফলে অনলাইন টিউটরিংয়ের আয় সম্প্রতি অনেক বেড়েছে। তবে, উপার্জনের আয় নির্ভর করে আপনি কোথা থেকে এবং কোন বিষয়ে পড়াবেন। শীর্ষ স্তরের টিউটররা প্রতি মাসে $২,০০০ -১০,০০০ পর্যন্ত উপার্জন করে। IELTS কোর্স, অংক, বিজ্ঞানের বিভিন্ন বিষয়, SAT – এর প্রস্তুতি বা ক্যালকুলাস এর মতো বিষয়গুলির মাধ্যমে আয় অনেক বেশি হয়।

Leave a Comment